১৪ বছরের কিশোরীকে বিয়ে করলেন ৬০ বছরের এমপি

পাকিস্তানের একজন সংসদ সদস্য ১৪ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ে করেছেন। জমিয়াত উলেমা-ই-ইসলামের ওই নেতার নাম মাওলানা সালাউদ্দিন আয়ুবী।

তিনি বেলুচিস্তান থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য। কিশোরীকে বিয়ে করার অভিযোগে সালাহউদ্দিন আয়ুবীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে দেশটির পুলিশ।

ওই কিশোরী স্থানীয় জুঘুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। হাই স্কুলের খাতায় ওই কিশোরীর জন্মতারিখ লেখা হয়েছে ২৮ অক্টোবর ২০০৬।

দেশটির আইন অনুযায়ী ওই কিশোরীর এখনো বিয়ের বয়স হয়নি। স্থানীয় একটি এনজিও সংস্থার কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাটির তদন্তে নেমেছে।

চিত্রল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদ আহমেদ বলেছেন, কয়েক দিন আগে এ অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ কিশোরীর বাড়িতে গিয়ে জানতে চাইলে তার বাবা বিয়ের কথা অস্বীকার করেছেন।

পাকিস্তানের আইন অনুযায়ী ১৬ বছর না হলে মেয়েদের বিয়ে দেওয়া যাবে না। এ ক্ষেত্রে মেয়েটির এখনো বিয়ের বয়স হয়নি এবং যার সঙ্গে তার বিয়ে দেওয়া হয়েছে, তার বয়স ৪ গুণ বেশি। আইনে বলা হয়েছে, ১৬ বছরের আগে মেয়েকে দিলে বাবা-মাকে শাস্তির মুখোমুখি করা হবে।

এদিকে জানা গেছে, বিয়ে হলেও কনেকে এখনো বরের বাড়িতে নেওয়া হয়নি। স্থানীয় আইনি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মেয়েটির বয়স ১৬ হওয়ার আগে পিতা-মাতা তাকে বরের বাড়ি পাঠাবে না বলে মুচলেকা দিয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*