প্রবাসীদের জন্য ফাঁ’দ! পিয়নের অ্যাকাউন্টে ৩০ কোটি টাকা!

লিবিয়ায় মানবপা’চারের ঘটনা ত’দন্তে নেমে চাঞ্চল্যকর ত’থ্য পেয়েছে পু’লিশের অ’পরাধ ত’দন্ত বিভাগ সিআইডি। এর মধ্যে ৩৬ পা’চারকারীকে গ্রে’প্তারও করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে একটি এজেন্সির একজন পিয়ন রয়েছেন।

তাঁর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৩০ কোটি টাকার স’ন্ধান মিলেছে। পা’চারের ঘ’টনায় তিন মাস্টারমা’ইন্ডকে শ’নাক্ত করা গেছে। অন্যদিকে কুয়েতে আ’টক ল’ক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী শহিদ ই’সলাম পাপুলের বি’রুদ্ধেও অ’নুসন্ধান শুরু করেছে সিআইডি।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি হেডকোয়ার্টার্সে এক ব্রিফিংয়ে এসব ত’থ্য জানান সিআইডির প্রধান অ’তিরিক্ত আইজিপি ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান। এ সময় সিআইডির ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ, মাইনুল হাসান ও শেখ নাজমুল আলম সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

লিবিয়ার প্রস’ঙ্গে বলতে গিয়ে সিআইডির প্রধান বলেন, লিবিয়ায় বাংলাদেশের ২৬ নাগরিক নি’হত হয়েছেন। আর আ’হত হয়েছেন ১১ জন। এ ঘ’টনায় বাংলাদেশের বিভিন্ন থা’নায় ২৬টি মা’মলা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫টি মা’মলার ত’দন্ত করছে সিআইডি।

এসব মা’মলায় এ পর্যন্ত ৬৭ জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে সিআইডি গ্রে’প্তার করেছে ৩৬ জনকে। তাঁদের মধ্যে একজন পিয়নের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৩০ কোটি টাকা পাওয়া গেছে।

কুয়েতে আ’টক ল’ক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ‘ইসলাম পাপুলের বিষয়ে জানতে চাইলে ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, তাঁর (পাপুলের) বি’রুদ্ধে অ’নুস’ন্ধান শুরু হয়েছে। পাপুলের বি’রুদ্ধে মানবপা’চার, অ’তিরিক্ত ভিসা নবায়ন ফি আদায়, কুয়েতের সরকারি কর্মক’র্তাদের ঘু’ষ দেওয়াসহ বিভিন্ন অ’ভিযোগ ত’দন্ত করছে কুয়েত ক্রি’মিনাল ইনভে’স্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট।

তাঁর বি’রুদ্ধে ১১ জন বাংলাদেশিও সা’ক্ষী দিয়েছেন। এ ছাড়া পাপুলের বেশ কয়েকটি ব্যাংক হিসাব জ’ব্দ করেছে সিআইডি। আর কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মক’র্তা তাঁর বি’রুদ্ধে মা’মলা করেছেন। মানবপা’চার ও অর্থপা’চারে জ’ড়িত থাকার অ’ভিযোগে গত ৭ জুন কুয়েতে পাপুলকে আ’টক করা হয়।

কুয়েত ক্রি’মিনাল ইনভে’স্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট তাঁকে রি’মান্ডে নিয়ে জি’জ্ঞাসাবা’দ করছে। এ ছাড়া পাপুলের কাছ থেকে ঘু’ষ নেওয়ার অ’ভিযোগে এরই মধ্যে কুয়েতের তিনজন সরকারি কর্মক’র্তাকে আ’টক করা হয়েছে। তাঁদেরও জি’জ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিবিয়ার ঘ’টনায় তিন মাস্টারমা’ইন্ডকে শ’নাক্তের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সিআইডির ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ত’দন্তে কয়েকজন মাস্টারমাই’ন্ডের নাম পাওয়া গেছে। তাঁদের গ্রে’প্তারের চে’ষ্টা চলছে। আর যাঁদের গ্রে’প্তার করা হয়েছে, তাঁদের কাছ থেকে বিভিন্ন ত’থ্য পাওয়া যাচ্ছে। কারা কারা মা’নবপা’চাকারী হিসেবে দেশে কাজ করছে, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*