আ’মেরিকায় বসে বাংলাদেশে চাকরি! ইস্তফা দিলেন সেই শিক্ষিকা

প্রশাসন ব্যবস্থা নেওয়ার আগেই কালের কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর আ’মেরিকা থেকে টাঙ্গাইলের মির্জা’পুরের সেই সহকারী শিক্ষিকা চাকরি থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন মির্জা’পুর উপজে’লা শিক্ষা কর্মক’র্তা মো. আলমগীর হোসেন। তিন মাসের ছুটি নিয়ে দেড় বছর যাবৎ আ’মেরিকায় অবস্থান করছেন শিক্ষিকা তানিয়া রহমান।

উপজে’লা শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, তানিয়া রহমান মির্জা’পুর পৌরসভা’র ২৬ নম্বর বাওয়ার কুমা’রজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা। তিনি ২০১৯ সালের ৩ জুলাই থেকে ব্যক্তিগত সমস্যা দেখিয়ে স্কুল থেকে তিন মাসের ছুটি নেন।

ছুটি নিয়ে তিনি একই বছরের ২ জুলাই সপরিবারে আ’মেরিকায় চলে যান। তার পর থেকে স্কুলের সঙ্গে তানিয়া রহমানের কোনো যোগাযোগ নেই। উপজে’লা শিক্ষা অফিস থেকে একাধিকবার এ ব্যাপারে কৈফিয়ত চেয়ে তার ঠিকানায় পত্র পাঠালেও কেউ তা গ্রহণ করেননি বলে উপজে’লা শিক্ষা অফিস সূত্র জানিয়েছে।

সর্বশেষ তানিয়া রহমানের ঠিকানায় ২৩ জুলাই ২০২০ তারিখে কৈফিয়ত চেয়ে পত্র পাঠায় উপজে’লা শিক্ষা অফিস। ওই পত্রটিও কেউ গ্রহণ করেনি বলে জানা গেছে।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি কালের কণ্ঠে ‘চাকরি বাংলাদেশে, থাকেন আ’মেরিকায়’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি স্থানীয় প্রশাসনসহ ওই শিক্ষিকার নজরে আসে। প্রশাসন ব্যবস্থা নেওয়ার আগেই ওই দিন তানিয়া রহমান চাকরি থেকে ইস্তফা দেন। তাঁর ইস্তফাপত্রটি গতকাল বুধবার মির্জা’পুর উপজে’লা শিক্ষা অফিসে পৌঁছে।

এ ব্যাপারে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলুয়ারা বেগমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, ওই শিক্ষিকার অনুপস্থিতির বিষয়টি উপজে’লা শিক্ষা অফিসারকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছিল।

মির্জা’পুর উপজে’লা শিক্ষা অফিসার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, সহকারী শিক্ষক তানিয়া রহমান তিন মাসের ছুটি নিয়ে আ’মেরিকা চলে যান। দীর্ঘ দেড় বছর পর প্রশাসন ব্যবস্থা নেওয়ার আগেই তিনি তার চাকরি থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*